Home বানিয়াচং রাষ্ট্রীয় সম্পদ দিয়ে চাঁদাবাজি!

রাষ্ট্রীয় সম্পদ দিয়ে চাঁদাবাজি!

0
শেয়ার করুনঃ
রায়হান উদ্দিন সুমন: হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি নতুন কিছুই নয়। যে হাতি বনে থাকার কথা কিংবা চিড়িয়াখানায় দর্শনার্থীদের প্রদর্শনের জন্য রাখা হয়,সে হাতি নিয়ে অভিনব পন্থায় চাঁদাবাজিতে মত্ত একশ্রেণির সিন্ডিকেট চাঁদাবাজ। হাতির পিঠে বসা মাউতের ইশারায় কৌশলী চাঁদাবাজিতে নেমেছে একটি মহল। তারা কখনো শহরের রাস্তাঘাটে,আবার কখনো গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের হাটবাজারে কিংবা পথে-ঘাটে,সড়ক-মহাসড়কে চাঁদাবাজি করছে। এ নিয়ে কয়েকবার স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলেও ঠনক নড়েনি স্থানীয় প্রশাসনের। জানা যায়,এই ধরনের চাঁদাবাজিতে শোয়ারিকে প্রকাশ্যে দেখা গেলেও এর নেপথ্যে আছে একটি শক্তিশালী চক্র।

 যারা দিনের শেষে চাঁদার ভাগ-বাটোয়ারা করছে অজ্ঞাত স্থানে বসে। এই হাতি রাষ্ট্রীয় সম্পদ। রাষ্ট্র কি এই হাতির প্রদর্শনিতে কোন অর্থ পায়? বানিয়াচংয়ে তেমনি দুইটি পালা হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি করতে দেখা গেছে। গত সোমবার সকাল সাড়ে ৯ টার সময় বানিয়াচংয়ের নতুনবাজার,৫/৬নং বাজার,বড়বাজারসহ প্রায় সবকটি বাজারে হাতি দিয়ে অবৈধভাবে চাঁদাবাজি করতে দেখা গেছে দুই ব্যক্তিকে। তারা হলেন কিশোরগঞ্জ জেলার তোরাব আলী ও আবু তাহের। তারা জানান,এটা সার্কাসের হাতি। সারা বছরতো সার্কাস থাকেনা তাই আমরা মাঝেমধ্যে হাতি দিয়ে মানুষকে আনন্দ দেয়ার জন্য রাস্তাঘাটে ঘুরে বেড়াই। কৌতুহলী মানুষ যা দেয় আমরা তা ই সাদরে গ্রহন করি। এর কিছু দিন পূর্বেও বানিয়াচংয়ের প্রতিটি আনাচে-কানাছে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি করেছিল। তবে সেটা ছিল অন্য মালিকের।

বাজার ব্যবসায়ীরা জানান,হাতির পিঠে বসা মাউতের ইশারায় হাতিটি শুড় লম্বা করে দোকানের ভিতর ঢুকিয়ে দিলে পিঠের মাউত বলে উঠে সালাম কর! তারপর হাতি শুড় লম্বা করে সালাম দেয়। তারপর শোয়ারি বলে সালামি দেন। এসময় ব্যবসায়ীরা যারযার সাধ্যমতো টাকা দিলেও মাউতের ইশারায় হাতি ১০টাকার নিচে কোন মুদ্রা গ্রহন না করে শুড় দিয়ে ভয়ভীতি দেখাতে শুরু করে। পরে ব্যবসায়ীরা তাদের কাংখিত টাকা দিয়ে রক্ষা পায়। অন্যথায় ভয় দেখিয়ে হুংকার ছাড়ে। এমনকি রাস্তাঘাট বন্ধ করে রিকসা,সিএনজি,ট্রাক,মটরসাইকেল আটকিয়ে নীরব চাঁদাবাজি করছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। এভাবে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি করে ঠান্ডা মাথায় হাতিয়ে নিচ্ছে বিপুল পরিমানের টাকা। স্থানীয় প্রশাসন এই বিষয়ে পদক্ষেপ না নিলে একপর্যায়ে বিনা অস্ত্রে এই প্রদর্শনীর মাধ্যমে বেড়ে যাবে অভিনব কায়দায় হাতি নিয়ে ডাকাতি।

শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

Load More In বানিয়াচং