Home বানিয়াচং বানিয়াচংয়ে সারাবছরই অরক্ষিত থাকে শহীদ মিনার !

বানিয়াচংয়ে সারাবছরই অরক্ষিত থাকে শহীদ মিনার !

0
শেয়ার করুনঃ
 রায়হান উদ্দিন সুমন :    বানিয়াচংয়ের একমাত্র শহীদ মিনারটি সারাবছরই অযত্ন,অবহেলায় পড়ে থাকে। শুধুমাত্র ২১ ফেব্রুয়ারি মহান আত্নর্জাাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস এলেই চোখে পড়ে এটি পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা কাজের। জানা যায়, সন্ধ্যা নামার পরই মাদকসেবীদের নিরাপদ আশ্রয়স্থল হিসেবে পরিণত হয় এই শহীদ মিনার। বানিয়াচংয়ে হাতেগোনা কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নির্মিত হলেও বেশির ভাগ শহীদ মিনারই অবহেলায় পড়ে থাকে সারাবছর। সরেজমিনে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে গিয়ে দেখা যায়,দিনের বেলায় অনেকেই জুতা পড়ে মিনারের বেদিকে হাঁটা-চলা করছে। পাশাপাশি শহীদ মিনারের ভিতরে এক সাপুড়ে সাপের খেলা দেখাচ্ছে। 
শহীদ মিনারের ভিতরে ময়লা আবর্জনার স্তুপ
আবার বিভিন্ন দল ও সামাজিক সংগঠনের কর্মসূচী এই শহীদ মিনারেই পালন করে। এ দিকে ভাষা শহীদদের সম্মানার্থে শহীদ মিনারের মর্যাদা ও পবিত্রতা রক্ষায় জরুরী পদক্ষেপ গ্রহনের অনুরোধ জানিয়েছেন সচেতনমহল। অভিযোগ রয়েছে- শহীদ মিনারের বেদিতে বসে একধরণের উশৃঙ্খল তরুণরা ধুমপানসহ মাদক সেবন করে। কেউ কেউ বেদির পিছনে দাঁড়িয়ে জরুরী কর্মসম্পাদন ও করেন বলে জানান এক ব্যক্তি। এখানের উদ্ভট গন্ধে এই মিনারের আশেপাশেও যাওয়া যায়না। শহীদ মিনারের মূল বেদিতে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ে আছে সিগারেটের প্যাকেট ও অসংখ্য উচ্ছিষ্ঠ অংশ,ময়লা-আবর্জনায়। আবার এই শহীদ মিনারের ভিতের মেলা ও অনুষ্ঠিত হয়। বিশেষ করে মিনারের পূর্বদিকটা অস্থায়ী পস্রাবখানা হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। 
শহীদ মিনারের ভিতরে সাপের খেলা দেখাচ্ছে সাপুড়ে
বানিয়াচংয়ের ভাষাসৈনিক এড.শওদাকত আলী খান বলেন,শহীদ মিনারটি যেভাবে মর্যাদাহীন হচ্ছে এর চেয়ে বড় দু:খ আর কিছুই হতে পারেনা। শুধুমাত্র দিবস এলেই এর কদর বেড়ে যায়। তাই সবসময় যাতে এই শহীদ মিনারটিকে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা যায় সেদিকে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন তিনি।
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

Load More In বানিয়াচং